নানিয়ারচরের বগাছড়িতে অগ্নিসংযোগ ঘটনার প্রতিবাদে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি রুটে লাগাতার সড়ক অবরোধের প্রথম দিন অতিবাহিত

স্টাফ রিপোর্টার,হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

IMG_5067
রাঙামাটির নানিয়ারচরে তিনটি পাহাড়ী গ্রামে অগ্নিসংযোগের ঘটনার প্রতিবাদে এবং হামলাকারীদের গ্রেফতারসহ ৫ দফা দাবিতে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি রুটে লাগাতার সড়ক অবরোধ কর্মসূচির সোমবার প্রথম দিন শান্তিপুর্নভাবে পালিত হয়েছে। এর আগে বুধবার থেকে শুক্রবার পর্ষন্ত ওই রুটে অবরোধ পালন করে নানিয়ারচর ভুমি রক্ষা কমিটি।

এদিকে সোমবার বগাছড়ি বৌদ্ধ ভিক্ষুকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে ৫টি বুদ্ধ মূর্তি লুট ও ভাংচুর, তিনটি পাহাড়ী গ্রামে অগ্নিসংযোগ ঘটনায় দোষীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে সোমবার ক্ষতিগ্রস্থদের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসকের বরাবরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি দিয়েছে।

উল্লেখ্য, নানিয়ারচরে বুড়িঘাট ইউনিয়নের ১৪ মাইলের সুরিদাশ পাড়া এলাকায় আনারস বাগানের চারা গাছ কেটে দেয়াকে কেন্দ্র করে গত ১৬ ডিসেম্বর সেটেলার বাঙালীরা সুািরদাস পাড়া, নবীন পাড়া ও বগাছড়ির পাহাড়ী গ্রামে অগ্নিসংযোগ করে। এতে তিনটি গ্রামের ৫৪টি বসতঘর ও ৭টি দোকানঘর পুড়ে যায়। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসন থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট সাইফ উদ্দীন আহম্মদকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি সরকারী তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। এছাড়া স্থানীয়ভাবে নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে প্রধান করে ১১সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।

IMG_5089

সুরিদাস পাড়াসহ পাহাড়ি গ্রামে অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে এবং হামলাকারীদের গ্রেফতারসহ ৫ দফা দাবি পূরণ ও নিরাপত্তা নিশ্চিতের দাবিতে নানিয়ারচর ভূমি রক্ষা কমিটির ডাকে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি রুটে লাগাতার সড়ক অবরোধ কর্মসূচি হিসেবে গতকাল সোমবার প্রথম দিন শান্তিপুর্নভাবে পালিত হয়েছে। ফলে রুটে কোন যানবাহন চলাচল না করতে পারেনি। ফলে ওই রুটে চলাচলকারী যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে। সড়ক অবরোধকালে ১৪ মাইল এলাকার রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে রাস্তার উপর গাছের গুড়ি ফেলে দিয়ে পিকেটিং করতে ধেকা গেছে অবরোধকারীদের।

অপরদিকে, সোমবার জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত ম্যাজিষ্ট্রেট সাইফ উদ্দীন আহমেদকে প্রধান করে গঠিত তিন সদস্য বিশিষ্ট সরকারী তদন্ত টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শনকালে তারা ক্ষতিগ্রস্থ পাহাড়ী ও ক্ষতিগ্রস্থ আনারস বাগানের মালিকদের সাথে কথা বলেছেন।

অপরদিকে, বগাছড়িতে পাহাড়ি গ্রামে বসতবাড়িতে অগ্নিসংযোগ ঘটনায় দোষীদের গ্রেফতারসহ ৫ দফা দাবিতে সোমবার জেলা প্রশাসকের বরাবরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি দিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থরা।

৫ দফা দাবি মধ্যে ছিল ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের ক্ষতিপূরণ দিয়ে স্ব স্ব জায়গায় পুর্ণবাসন, লুট হওয়া বৌদ্ধ মূর্তি উদ্ধার, বগাছড়ি, দিনেজ পাড়া, পুলিপাড়া, নানাত্রুুম পাড়া ও বুড়িঘাট এলাকায় ভুমি বেদখল বন্ধ, বেদখলকৃত জমি ফেরত,পাহাড়ীদের উপর অপ্রীতিকর ঘটনা হবে তার নিশ্চয়তা, বগাছড়ি, দিনেজ পাড়া, পুলি পাড়া,নানাক্রুম ও বুড়িঘাট এলাকা থেকে বাঙালী সেটেলারদের সরিয়ে নিয়ে সমতলে পুর্নবাসন করা। স্মারকলিপি প্রদানকালে এ সময় উপস্থিত ছিলেন বগাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান প্রমোদ খীসা, সাবেক্ষং ইউপি চেয়ারম্যান সুশীল জীবন চাকমা, ঘিলাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান অমর জীবন চাকমা ও বগাছড়ি মৌজার কারবারী রাম চাকমা।

স্মারকলিপি প্রদানের সময় জেলা প্রশাসক মোস্তফা কামাল বলেন, ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য প্রশাসন থেকে ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত রয়েছে। ইতোমধ্যে ক্ষতিগ্রস্থ প্রতি পরিবারকে ২০ কেজি করে চাউল, ১লাখ ৩৫ হাজার টাকা ও ৪৫ বান্ডিল ঢেউ টিন দেয়া হয়েছে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য জেলা প্রশাসন থেকে ২৫ সেট তাবু বিতরণসহ অন্যান্য সহায়তা দেয়া হচ্ছে।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly