সাজেকে বুদ্ধমূর্তি স্থাপন কাজে প্রশাসনের বাধার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ সাজেক ভুমি রক্ষা কমিটির

ডেস্ক রিপোর্ট,হিলবিডিটেয়েন্টিফোর ডটকম

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের গঙ্গারামের উজো বাজার এলাকায় বুদ্ধমূর্তি স্থাপন কাজে প্রশাসনের বাধার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সাজেক ভূমি রক্ষা কমিটি।

মঙ্গলবার সাজেক ভূমি রক্ষা কমিটির সাধারণ সম্পাদকজ্যোতিলাল চাকমার স্বকাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এই  প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে অভিযোগ করে দাবি করা হয়,মঙ্গলবার দুপুরে এলাকাবাসী গঙ্গারামের উজোবাজার এলাকায় ১০ফুট উচ্চতার একটি বুদ্ধমূর্তি স্থাপনের জন্য কাজ করছিলেন। এ সময় বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুমন চৌধুরী পুলিশ সমেত এসে বাধা প্রদান করে। তিনি(ইউএনও) বুদ্ধমূর্তি নির্মাণাধীন স্থানে বিজিবি ক্যাম্প স্থাপনের কথা বলেছেন। যা পাহাড়িদের ধর্ম পালন ও ধর্মীয় অনুভূতির ওপর চরম আঘাত এবং জায়গা-জমি বেদখলের মাধ্যমে সাজেক এলাকাবাসীকে নিজ বসতভিটা থেকে উচ্ছেদের গভীর চক্রান্ত ছাড়া আর কিছুই নয়।

বিবৃতিতে সাজেক এলাকা থেকে পাহাড়ি জনগণকে উচ্ছেদ করার লক্ষ্যে সরকার একের পর এক চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে বিগত ২০০৮ ও ২০১০ সালে গঙ্গারাম দোরসহ কয়েকটি গ্রামে সেনা-সেটলাররা হামলা চালিয়ে পাহাড়িদের ৫ শতাধিক বাড়িঘর পুড়িয়ে ছাড়খার করে দিয়েছিলো এবং দুই জনকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, এলাকার জনগণ যে কোন মূল্যে বুদ্ধমূর্তি স্থাপনের কাজ চালিয়ে যেতে বদ্ধ পরিকর। প্রশাসন যদি এলাকার জনগণের ধর্মীয় অনুভূতি বিবেচনা না করে বুদ্ধমূর্তি স্থাপন কাজে আবারো বাধা দেয় এবং বিজিবি ক্যাম্প স্থাপনের নামে পাহাড়ি জনগণকে উচ্ছেদের চেষ্টা চালায় তাহলে যে কোন উদ্ভুত পরিস্থিতির জন্য সরকার এবং প্রশাসনই দায়ী থাকবে।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে বুদ্ধমূর্তি নির্মাণে বাধাদানের ঘটনার প্রতিবাদে ভূমি রক্ষা কমিটির নেতৃত্বে তাৎক্ষণিকভাবে উজো বাজার এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে নেতৃত্বে দেন ভূমিরক্ষা কমিটির সভাপতি জ্ঞানেন্দু চাকমা, গণতান্ত্রিক যুবে ফোরাম সাজেকে শাখার সভাপতি সুপন চাকমা, সহসভাপতি জেনেল চাকমা, বীররঞ্জন কার্বারী প্রমুখ।

–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly