সাজেকবাসীর ভাগ্য বদলে দিয়েছে সেনাবাহিনী

জাহাঙ্গীর আলম রাজু, সাজেক থেকে ফিরে

sajek-pic-(7)hillbd24.com

যুগ যুগ ধরে অবহেলীত দুর্গম পাহাড়ী জনপদ সাজেকবাসীর ভাগ্য বদলে দিয়েছে বাংলাদেশ সেনা বাহিনী। পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলার সুবাদে সাজেকবাসীর জীবনে লেগেছে পরিবর্তনের ছোয়া। অভাব অনটন আর নানা প্রকার নাগরিক সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত সাজেকবাসী এখন গাইছেন দিন বদলের জয়োগান। ভারত ও বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী দুর্গম এই পাহাড়ী জনপদ এখন পার্বত্যবাসীর আলোচনার শীর্ষে।

তবে হঠাৎ করে সাজেকবাসীর উন্নয়নের শত কোটি টাকা ব্যয় করা নিয়ে কিছু সংখ্যক মানুষের মধ্যে নানা প্রকার কৌতুহল সৃষ্টি হলেও সাজেকের লুসাই ও ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের জীবনে এ যেনো মেঘ না চাইতে বৃষ্টি পাওয়ার মত ঘটনা। সাজেকবাসীর মতে প্রত্যাশার চেয়ে প্রাপ্তির পরিমান বেশী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাজেক ঘুরে যাওয়ার কারনেই এই প্রাপ্তিতা নিশ্চিত হয়েছে মনে করছেন দুর্গম সাজেকের মানুষ। কারণ সেই বৃটিশ শাসনামল থেকে জীবন জীবিকা এবং নানা ক্ষেত্রে পিছিয়ে থাকা সাজেকবাসীর জীবনে অনেক দেরীতে হলেও সামাজিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে ভাগ্য পরিবর্তনের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করছেন সীমান্তবর্তী এই জনপদের সাধারন মানুষ।

sajek-pic-(2)hillbd24.com

মঙ্গলবারের (৩১ ডিসেম্বর) দিনটি ছিল সাজেকবাসীর জন্য একটি গুরুত্বপুর্ন দিন ও ভাগ্য বদলের দিন। এদিন সাজেকের বিভিন্ন প্রকল্প উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম অঞ্চলের এরিয়া কমান্ডা ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল সাব্বির আহাম্মদ এনডিসি, পিএসসি। প্রকল্পের মধ্য রয়েছে ৮০ কোটি টাকার ব্যয়ে নির্মিত ৩৩ কিলোমিটার সাজেক সড়ক ও চালু করা হয় সাজেকের সাথে সরাসরি বাস সার্ভিস। ৭০ লাখ ৭৫ হাজার ব্যয়ে নির্মিত নিত্য প্রয়োজনীয় ও খাবার পানির হাউস, মাধ্যমিক শিক্ষা লাভের জন্য রুইলুই পাড়ায় নির্মিত নিন্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সাজেকবাসীর ঐতিহ্যবাহী ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক ও সংস্কৃতির স্বকীয়তাকে বিকশিত করার মাধ্যমে যুব সমাজকে সামাজিক কর্মকান্ডে ঐক্যবদ্ধ রাখার লক্ষ্যে দৃষ্টিনন্দন কাব হাউস, অপেক্ষমান যাত্রীদের জন্য নির্মিত যাত্রী ছাউনী, সাজেকবাসীর পর্যটন বান্দব বসতবাড়ি ও সনাতন ধর্মালম্বী ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের প্রার্থনার জন্য একটি শিব মন্দির।

sajek-pic-(6)hillbd24.com

এসব প্রকল্প উদ্বোধন উপলক্ষে সাজেকের রুইলুই পাড়ায় আয়োজন করা হয় এক সূধী সমাবেশ। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম অঞ্চলের এরিয়া কমান্ডা ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল সাব্বির আহাম্মদ এনডিসি, পিএসসি।

এসময় বক্তব্য দেন খাড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী শামশুল ইসলাম পিএসসি, মারিশ্যা জোন অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল রবিউল ইসলাম ও সাজেক রুইলুই মৌজার হেডম্যান লাল থাংয়া লুসাই।অন্যান্যর মধ্য উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি বিজিবি’র সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল ফরিদ আহাম্মদ, বাঘাইহাট জোন অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল কবির হোসেন, দীঘিনালা জোন অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল লোকমান আলী, বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন চৌধুরী, খাগড়াছড়ি সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সাধারন সম্পাদক এসএম শফি ও দীঘিনালা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাজীব ত্রিপুরা।

sajek-pic-(4)hillbd24.comপ্রধান অতিথির বক্তব্যে মেজর জেনারেল সাব্বির আহাম্মদ বলেন, সাজেকবাসীর দিন বদলের পদযাত্রা শুরু হয়েছে। পর্যটনসহ নানা ক্ষেত্রে সাজেক একটি সম্ভাবনায় অঞ্চল। তাই এ সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে সাজেকের মানুষকে এগিয়ে যেতে হবে। শিক্ষা স্বাস্থ্য ও যোগাযোগসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাজেকবাসীর যে সুযোগ সুবিধা সৃষ্টি হয়েছে তা সঠিকভাবে ব্যবহারের মাধ্যমে নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তনের লক্ষ্যে সাজেকবাসীকে আরও সচেতন ও যত্নবান হতে হবে।

তিনি আরও বলেন, নানা প্রকার দৃষ্টিনন্দন স্থাপনা নির্মানের মাধ্যমে সাজেককে আরও বর্ণিল ও নান্দনিকভাবে সাজাতে আমরা যে সুদুর প্রসারি পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি তার প্রথম পর্ব বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এ পর্বে মানবিক দৃষ্টিকোন থেকে বিবেচনা করে সাজেকবাসীর স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোকে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে।

sajek-pic-(5)hillbd24.comতিনি আরও বলেন, সাজেকবাসীর যোগাযোগ ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে সেনাবাহিনী ৮০ কোটি টাকার ব্যয়ে ৩৩ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ করেছে। আজ থেকে এই সড়কে যাত্রীবাহি বাস চলাচল শুরু হয়েছে। এটি সাজেকবাসীর জন্য একটি মাইল ফলক পদযাত্রা।

তিনি বলেন, সাজেকের মানুষ দীর্ঘদিন ধরে যেসব স্বপ্ন দেখেছিল আজ তা বাস্তবে পরিনত হতে শুরু করেছে। তাই এলাকার সামগ্রীক উন্নয়নের স্বার্থে শান্তি ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐক্যবদ্ধ প্রয়াস বজায়ে রাখার জন্য তিনি সাজেকবাসীর প্রতি আহবান জানান।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর

sajek pic-(1)-hillbd24.com

Print Friendly