সরকার শীঘ্রই রাঙামাটিতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজের স্থাপনার কাজ শুরু করবে–পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার,হিলবিডিটোয়েন্টিফো ডটকম

Rangamati Pichillbd24.com

সরকার শীঘ্রই রাঙামাটিতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজের স্থাপনার কাজ শুরু করবে বলে  জানিয়েছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশেসিং এমপি।

শনিবার রাঙামাটির বালুখালী ইউনিয়নে প্রস্তাবিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপনা নির্মানের জন্য স্থান পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের একথা জানান পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি।

প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বাস্তবায়নের লক্ষে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি গতকাল সদর উপজেলার বালুখালী ইউনিয়নের কৃষি খামার ও তার আশেপাশে এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শন করেন। এ সময় সংরতি মহিলা আসনের সাংসদ ফিরোজা বেগম চিনু, পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, জেলা প্রশাসক মোস্তফা কামাল, পুলিশ সুপার আমেনা বেগম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বান্দরবান আসনের নির্বাচিত সাংসদ নির্বাচিত সাংসদ বীর বাহাদু পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহনের পর প্রথমবারের মত রাঙামাটিতে পৌঁছালে শহরের ভেদভেদীসহ কয়েকটি স্থানে জেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা তাকে উঞ্চ সংবর্ধনা জানান। এছাড়া শহরের রাঙামাটি-চট্টগ্রাম সড়কের বিভিন্ন স্থানে স্বাগত জানিয়ে তোড়ন নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া বিকালে প্রতিমন্ত্রী জেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের মতবিনিময় সভায় যোগদান করেন।

প্রসঙ্গত উলেখ্য,২০১৩ সালের ২২ র্ফেরয়ারী প্রধানমন্ত্রী রাঙামাটিতে সফরের সময় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপনা থেকে কোন কার্যক্রম শুরু হয়নি। যদিও সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি রাঙামাটিতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজ স্থাপনের বিরোধীতা করে আসছিল। সম্প্রতি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রালয় রাঙামাটি মেডিকেল কলেজের ২০১৪-১৫ সালের শিক্ষা বর্ষের জন্য এমবিবিএস কোর্সে প্রথম বর্ষে ৫০ ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করার প্রশাসনিক অনুমোদন প্রদান করে। এর প্রতিবাদে ও মেডিকেল কলেজ স্থাপনসহ সকল কার্যক্রম স্থগিতের দাবিতে বৃহস্পতিবার জনসংহতি সমিতি বিক্ষোভ-সমাবেশ ও স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি দেয়। স্বারকলিপিতে পার্বত্য চুক্তি যথাযথ বাস্তবায়ন না পর্ষন্ত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজের যাবতীয় কার্যক্রম বন্ধ রাখার দাবি জানানো হয়েছে।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly