সংস্কারের জন্য রাঙামাটি পর্যটনের ঝুলন্ত সেতুর উপর চলাচল সাময়িক বন্ধ ঘোষনা

স্টাফ রিপোর্টার, হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

brige okhillbd24.com

প্রয়োজনীয় সংস্কার কাজের জন্য রাঙামাটির আকষর্নীয় পর্যটনের ঝুলন্ত সেতুর উপর দিয়ে বুধবার থেকে সাধারন মানুষের চলাচলে সাময়িক বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। তবে সেতুর প্রয়োজনীয় মেরামতের কাজ শেষে যত দ্রুত সম্ভব সেতুর উপর চলাচল খুলে দেয়া হবে বলে জানিয়েছে রাঙামাটি পর্যটন কর্পোরেশন কর্তপক্ষ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সত্তর দশকের শেষের দিকে সরকার রাঙামাটি জেলাকে পর্যটন এলাকা হিসেবে ঘোষনা এবং পর্যটন কর্পোরেশন পর্যটকদের সুবিধার্থে আকর্ষনীয় স্পট স্থাপন করে। এর মধ্যে পর্যটকদের মনোরঞ্জনের জন্য দুই পাহাড়ের মাঝখানে তৈরী করা হয় আকর্ষনীয় ঝুলন্ত সেতু। রাঙামাটির এই ঝুলন্ত সেতুটি পর্যটকদের আকর্ষনীয় পর্যটন স্পট হিসেবে পরিচিতি পায়। কিন্তু সেতুটি স্থাপনের পর থেকে তেমন একটা সংস্কারের উদ্যোগ নেয়নি কর্তৃপ। অবশেষে পর্যটকদের কাছে এই ঝুলন্ত সেতুটি আরও আকষর্নীয় ও পর্যটকদের চলাচলে নিরাপদ করতে পর্যটন কর্তৃপক্ষ নতুন করে সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহন করেছে।

অপর একটি সূত্র জানায়, গত ২১ ফেব্রয়ারী পর্যটন ঝুলন্ত সেতুর টানানো একটি ক্যাবলের তার ছিড়েঁ পড়ে। এতে করে সেতুর উপর পর্যটকদের চলাচলে মারাত্মক ঝুকিঁ হয়ে উঠে। রাঙামাটিতে প্রতিদিন পর্যটকের আগমন বেড়ে যাওয়ায় মানুষের পদভারে সেতুর অবস্থা আরও নাজুক হয়ে উঠে। এ অবস্থায় যে কোন অনাকাংখিত ঘটনা এড়াতে কর্তৃপক্ষ সেতুর উপর চলাচল সীমিত করে দেয়।

এদিকে পয্যটন মৌসুমের সময় রাঙামাটির আকর্ষনীয় ঝুলন্ত সতুটি সাময়িকভাবে কর্তৃপ বন্ধ করে দেয়ায় বেড়াতে আসা পর্যটকদের মাঝে হতাশ করেছে।

ঝুলন্ত সেতুর সংস্কার কাজে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রকৌশলী ও পর্যটন কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম জানান, পর্যটন কর্পোরেশনের প্রধান কার্যালয়ের নির্দেশে রাঙামাটি পর্যটন ঝুলন্ত সেতুর সংস্কার কাজ করা হচ্ছে। সংস্কারের মূল কাজ হচ্ছে সেতুর রং করা, সেতুর মধ্যে যে ক্যাবল রয়েছে সেগুলো নষ্ট হলে নতুন ক্যাবল লাগানোসহ পর্যটকদর জন্য আকর্ষনীয় করা।

রাঙামাটি সরকারী পর্যটন কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপক আখলাকুর রহমান জানান,পর্যটনের ঝুলন্ত সেতুর উপর চলাচল ঝুকিঁপূর্ন হয়ে উঠায় উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে বুধবার থেকে সেতুর উপর দিয়ে মানুষের চলাচল সাময়িক বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় মেরামতের কাজ শেষে যত দ্রুত সম্ভব সেতুর উপর চলা খুলে দেয়া হবে। তখন পর্যটকরা নির্বিঘ্নে ও নিরাপদে সেতুর সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে পারবেন।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly