সংঘারাম বৌদ্ধ বিহারে ২৮তম দানোত্তম কঠিন চীবরদান উদযাপিত

স্টাফ রিপোর্টার, হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম 

s.min.jpeg

আজ শনিবার(২নভেম্বর) রাঙামাটি শহরের ভেদভেদীস্থ সংঘারাম বৌদ্ধ বিহারে ২৮তম দানোত্তম কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।

সংঘারাম বৌদ্ধ বিহার প্রাঙ্গণে আয়োজিত কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার এমপি। সংঘারাম বিহারের অধ্যক্ষ শ্রদ্ধালংকার মহাথেরোর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট দীপেন দেওয়ান। অনুষ্ঠানে সদ্ধর্ম দেশনা প্রদান করেন উঃ পঞঞা দীপ থের।  এসময় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে  উপস্থিত ছিলেন ডাঃ সুপ্রিয় বড়ুয়া, মায়াধন চাকমা, বিহার পরিচালনা কমিটির সভাপতি নিহারবিন্দু চাকমাসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। ধর্মীয় সঙ্গীত পরিবেশন করেন জয়া প্রভা তংচংগ্যা, সচিব চাকমা ও অংখথোয়াই মারমা। দানোত্তম কঠিন চীবর দানানুষ্ঠানে অংশ নিতে শহরের বিভিন্ন এলাকা হতে শত শত দায়ক-দায়িকা অংশ নেন। এ ধর্মীয় অনুষ্ঠান সূচির মধ্যে ছিল সংঘদান, অষ্ট পরিষ্কার দান, কল্পতরু দান, হাজার প্রদীপ দান, বুদ্ধমুর্তি দানসহ বিভিন্ন দানযজ্ঞ। অনুষ্ঠানে শত শত বৌদ্ধ পূনার্থী এ ধর্মীয় অনুষ্ঠানে শরিক হন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার বলেন কঠিন চীবর দানানুষ্ঠানের মাধ্যমে অর্জিত পুন্য দেশ জাতি ও সমাজে উন্নতি ও সমৃদ্ধি বয়ে আনুক। সারাবিশ্বের সকল শান্তিকামী মানুষের জয় হোক। অনুষ্ঠানে আগত সকল পুণ্যার্থীর মঙ্গলময় জীবন কামনা করি। তিনি আরও বলেন বৌদ্ধদের মনে রাখা দরকার যে অপ্রতিরূপ দেশে বাস করলে ধর্ম চর্চা ও ধর্মপালনের ক্ষেত্রে নানা বাধার মুখোমুখি হতে হয়। এসব বাধা বিপত্তির দুর করতে গণতান্ত্রিক উপায়ে সমাধান খুজঁতে হবে। ধর্মীয় অনুষ্ঠানে বাধা সৃষ্টি করে নয়।
—হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly