১৯ ডিসেম্বর বান্দরবানের ঐতিহ্যবাহি ১৩৭তম রাজ পুন্যাহ

বান্দরবান প্রতিনিধি, হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

pic Bomang Raja

আগামী ১৯ ডিসেম্বর থেকে তিন দিন ব্যাপী বান্দরবানের ঐতিহ্যবাহী  বোমাং রাজ পুণ্যাহ শুরু হচ্ছে।

মঙ্গলবার বোমাং রাজার অফিস কক্ষে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলনে ১৭ তম বোমাং রাজা ইঞ্জিনিয়ার উ-উচপ্রু এ কথা জানান।

সাংবাদ সম্মেলনে বোমাং রাজা বলেন, বান্দরবানের রাজবাড়ি ময়দানে আগামী ১৯ ডিসেম্বর থেকে তিন দিন ব্যাপী বান্দরবানের ঐতিহ্যবাহী  বোমাং রাজ পুণ্যাহ শুরু হবে। তবে চাহিদা অনুযায়ী আরও দুদিন পুণ্যাহ বাড়াবো হবে।

৭২ বছর বয়স্ক বোমাং রাজা আরও জানান, গত বছর ১৩ জানুয়ারী বোমাং রাজা হিসেবে শপথ গ্রহনের মাধ্যমে রাজ সিংহাসনে অধিষ্ঠিত হন। এবং এটাই তার প্রথম রাজ পুণ্যাহ। তিনি বলেন তৎকালিন বৃটিশ আমলের ধার্য্যকৃত জুমের কর এখনো বলবৎ থাকায় রাজকার্য্য চালানো কষ্টকর হয়ে পড়েছে। কালের বিবর্তনে সব কিছু পাল্টে গেলেও সরকার সেই মান্দাতা আমলের নির্ধারিত জুম কর এখনো বলবৎ রেখেছে। এ ব্যাপারে সরকারের কাছে তার আগে রাজারা দাবি জানিয়ে আসলেও সরকার  কোন কার্যকর করেনি।

তিনি আরও বলেন,রাজ পুণ্যাহ আয়োজন করতে গেলে প্রচুর টাকা প্রয়োজন। এতে একটি রাজ পুন্যাহে ২০ থেকে ২৫ লক্ষ টাকা ব্যয় হয়। কিন্তু কর পাওয়া যায় মাত্র ৮০ থেকে ৯০ হাজার টাকা। আবার সে টাকার থেকে একটি অংশ সরকারের রাজস্ব জমা দিতে হয়।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন রাজপুন্যাহর সকল খরচ সরকারসহ বিভিন্ন সংস্থার অনুদানের মাধ্যমে ব্যয় করা হয়।

তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুরের প্রশংসা করে বলেন তিনি যে অফিসে বসে সংবাদ সম্মেলন করছি তা এক মাত্র বান্দরবানের সন্তান বীর বাহাদুরের কারনে সম্ভব হয়েছে। তিনি সুষ্ঠ এবং সুন্দর একটি পরিবেশে যাতে রাজপুণ্যাহ মেলা সম্পন্ন করা যায় তার জন্য সকলের সহযোগীতাও কামনা করেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রয়াত বোমাং রাজা অংশৈপ্রুর বড় ছেলে চহ্লাপ্রু জিমিসহ রাজপরিবারের সদস্যবর্গ।

–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly