রাজশাহীতে জাতীয় বাজেট এবং সরকারী সেবাসমূহে আদিবাসীদের জন্য ন্যায্য বরাদ্দ চাই শীর্ষক সেমিনার

ডেস্ক রিপোর্ট,হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

SAM_7763 (FILEminimizer)

বুধবার রাজশাহীতে জাতীয় বাজেট এবং সরকারী সেবাসমূহে আদিবাসীদের জন্য ন্যায্য বরাদ্দ চাই শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি সবিন চন্দ্র মুন্ডার পাঠানো এক প্রেস বার্তায়া বলা হয়, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ ও বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের যৌথ উদ্যোগে একশন এইড বাংলাদেশ এর আর্থিক সহযোগীতায় রাজশাহীর মুনলাইট গার্ডেন কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা ও আদিবাসী বিষয়ক সংসদীয় ককাসের আহব্বায়ক রাজশাহী সদর আসনের সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা এমপি।  সভাপতিত্ব করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন। জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সবিন চন্দ্র মুন্ডার সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিভাগীয় আদিবাসী সাংস্কৃতিক একাডেমির উপ-পরিচালক এসএম শামীম অক্তার। আলোচক ছিলেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য অনিল মারান্ডী, বিশিষ্ট সাংবাদিক মুস্তাফিজুর রহমান খান, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা বরজাহান আলী শাজাহান ও আদিবাসী নেত্রী সুমিলা টুডু। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মানিক সরেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, পাহাড় ও সমতলের আদিবাসীদের বাজেট বৈষম্য দূর করতে হবে। এছাড়াও শুধু সমতলের  আদিবাসীদের জন্য কমপক্ষে ১শ কোটি টাকা বরাদ্দ দিতে হবে।সাথে সমতলের আদিবাসী নারীদের জন্য বিশেষ বাজেট বরাদ্দ করতে পারি। তিনি আরও বলেন, সরকার আদিবাসীদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি দিতে ব্যর্থ হয়েছে,এর দায় সরকারকেই নিতে হবে। তিনি বাদ পড়া আদিবাসীদের অন্তর্ভুক্তি ও সমতলের আদিবাসীদের জন্য পৃথক ভূমি কমিশন গঠনের দাবি জানান।

জাতীয় আদিবাসী পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য অনিল মারান্ডী বলেন,সরকার আদিবাসীদের বাজেট নিয়ে তামাশা করছে। আদিবাসী গ্রামে বিদ্যুত, টিউবয়েল, হাট-বাজারও নেই। সরকার শুধু আদিবাসীদের ভোট ব্যাংক হিসেবে ব্যবহার করছে।

সেমিনারে বক্তারা বলেন, জাতীয় বাজেটের আকার প্রতি বছর বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু আদিবাসীদের জন্য বাজেট বরাদ্দ বাড়ছে না। তাই আদিবাসীদের জীবন ও জীবিকার উপর বাজেটের কোন ধরনের প্রভাব পড়ছে না। দেশের আপামর জনসাধারণের মত আদিবাসীদের  জাতীয় বাজেটে অধিকার রয়েছে। তাই আদিবাসীদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে বাজেট বরাদ্দের দাবি জানান বক্তারা। আদিবাসীদের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী নামকরণ করায় সরকারের কঠোর সমালোচনা  বক্তারকরে আরও বলেন, সরকারের এসব কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে আদিবাসী জনগোষ্ঠীকে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly