রাঙামাটিতে সন্তু লারমার কার্যালয়ে গ্রেনেড হামলা ঘটনায় মামলা দায়ের

স্টাফ রিপোর্টার,হিলবিডিটোয়েনিটফোর ডটকম

1

পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা ওরফে সন্তু লারমার কার্যালয়ে গ্রেনেড হামলা ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, পার্বত্য আঞ্চলিক পরিষদ কার্যালয় প্রাঙ্গনে গ্রেনেড হামলার ঘটনার দিন পরিষদের নৈশ প্রহরী সাধন কুমার চাকমা বাদী হয়ে আটক সুশীল চাকমাকে প্রধান আসামী করে আরও ৪ জনের  বিরুদ্ধে কতোয়ালী মামলা দায়ের করেছেন।

প্রঙ্গত: উল্লেখ্য, সোমবার ভোর সাড়ে ৩টার দিকে রাঙামাটিস্থ পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিন্দ্রিবোধিপ্রিয় লারমা ওরফে সন্তু লারমার কার্যালয় প্রাঙ্গনে শক্তিশালী গ্রেনেড বিস্ফোরন ঘটানো হয়। এতে সেখানে থাকা ৩টি গাড়ী সামান্য ক্ষতিগ্রস্থ হলেও একটি গাড়ীর গ্লাসগুলো ভেঙ্গে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এ ঘটনায় পুলিশ সুশীল চাকমা নামের এক যুবককে আটক করেছে। আটক ব্যক্তি একটি আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলের সাথে ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে  এ গ্রেনেড বিস্ফোরণ ঘটায় বলে  সে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে এবং  এ ঘটনার পর সে নিজেকে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতে থাকে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রচার বিভাগের সহ-সম্পাদক আঞ্চলিক পরিষদ কার্যালয়ে গ্রেনেড হামলা ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছেন, এ গ্রেনেড হামলায় পার্বত্য চুক্তি বিরোধী  ইউপিডিএফ জড়িত। তিনি দোষীদের উপযুক্ত শাস্তিসহ ইউপিডিএফের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ বন্ধের যথাযথ পদক্ষেপের জন্য সরকারের  প্রতি আহ্বান জানান। তবে ইউপিডিএফের মুখপাত্র মাইকেল চাকমা আটক ব্যক্তি জনসংহতি সমিতির সমর্থক এবং সরকার ও সন্তু লারমার সাজানো নাটক দাবি করে বলেছেন, আটক সুশীল ইউপিডিএফের কোন দিনই কর্মী বা সমর্থক ছিল না। বরং জনসংহতি সমিতির সমর্থক ছিল। সন্তু লারমার তার নিরাপত্তা বৃদ্ধিতে সেনাবাহিনী ও পুলিশের অধিকতর ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য একটি সাজানো যশ মিয়া নাটক মঞ্চায়িত করেছেন।

–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly