রাঙামাটিতে মেডিকেল কলেজ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্বদ্যিালয় স্থাপন স্থগিতের দাবিতে মহিলা সমিতির বিক্ষোভ-সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার,হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

Mohila, P.Pic-3
মঙ্গলবার রাঙামাটিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম মহিলা সমিতির উদ্যোগে বিক্ষোভ-সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাঙামাটিতে মেডিকেল কলেজ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্বদ্যিালয় স্থাপন, তিন পার্বত্য জেলা পরিষদের আইন সংশোধনের উদ্যোগসহ আদিবাসী নারীর ওপর অব্যাহত সহিংসতার প্রতিবাদ ও বন্ধের দাবিতে এ প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়।

জেলা প্রশাসন কার্যালয় চত্বরে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম মহিলা সমিতির সহ-সভাপতি ওয়াইচিং প্রু মারমা। বক্তব্য দেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রণতি বিকাশ চাকমা, সহ-তথ্য ও প্রচার সম্পাদক সজীব চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতির সাধারণ সম্পাদক তাপস চাকমা,পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ নেতা জুয়েল চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক রিমিতা চাকমা প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন পার্বত্য চট্টগ্রাম মহিলা সমিতির সাধারণ সম্পাদক সুপ্রভা চাকমা। সমাবেশ পরিচালনা করেন বরকল উপজেলা পরিষদ চেয়রম্যান মনি চাকমা।

এর আগে একটি বিক্ষোভ-মিছিল শহরের রাজবাড়ির জিমনেসিয়াম চত্ত্বর থেকে এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের করে বনরুপা পেট্রোল পাম্প চত্বর ঘুরে গিয়ে জেলা প্রশাসন কার্যালয় চত্বরের সামনে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন,সরকারের চুক্তি লঙ্ঘন করে রাঙামাটিতে মেডিকেল কলেজ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্বদ্যিালয় স্থাপন, তিন পার্বত্য জেলা পরিষদের আইন সংশোধনের উদ্যোগ, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের আইন প্রনয়ন করে চলেছে।

সমাবেশ থেকে সরকারের কাছে চার দফা সম্বলিত একটি দাবিনামা তুলে ধরা হয়। সেগুলো হল,পার্বত্য চুক্তির পূর্ণবাস্তবায়নের আগে রাঙামাটিতে মেডিকেল কলেজ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন কার্যক্রম স্থগিত রাখা, তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ আইন সংশোধনের উদ্যোগ বন্ধ, আইন বাতিলসহ পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বিলুপ্ত, পার্বত্য চট্টগ্রামে সেনা ও বিজিবি ক্যাম্প স্থাপন ও সম্প্রসারণ, পর্যটন কেন্দ্র স্থাপন, ইকোপার্ক ও সংরক্ষিত বনাঞ্চল ঘোষণার নামে জুম্মদের জায়গা-জমি অধিগ্রহণ ও বেদখলের প্রক্রিয়া বন্ধ ও গৃহীত প্রকল্প বাতিল, পার্বত্য চুক্তির অবাস্তবায়িত বিষয়গুলোর দ্রুত বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ এবং কল্পনা চাকমা অপহরণ ঘটনাসহ চুক্তি পরবর্তী জুম্ম নারীর ওপর সহিংসতার নিরপেক্ষ তদন্তপূর্বক দোষীদের বিরুদ্ধে যথাযথ বিচার ব্যবস্থা করা।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly