রাঙামাটিতে বিবিসি বাংলাদেশ সংলাপ অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার,হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

946924_518790024823179_1858049456_n

শনিবার রাঙামাটিতে বিবিসি বাংলাদেশ সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠিত বিবিসি বাংলাদেশ সংলাপটি হচ্ছে ঢাকার বাইরে ৯৬তম পর্ব।

রাঙামাটি পর্যটন কমপ্লেক্সের ডিয়াার পার্কে অনুষ্ঠিত সংলাপে প্যানেল আলোচক ছিলেন তিন পার্বত্য জেলার সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাংসদ ফিরোজা বেগম চিনু, চাকমা সার্কেল চীফ ব্যারিষ্টার দেবাশীষ রায়, রাঙামাটি পৌর মেয়র সাইফুল ইসলাম ভুট্টো, নারী নেত্রী টুকু তালুকদার। অনুষ্ঠানটি প্রয়োজনা করেন বিসিবির ওয়ালিউর রহমান মিরাজ এবং উপস্থাপনায় ছিলেন আকবর হোসেন।

সংলাপে তিনটি প্রশ্নোত্তর নির্ধারণ করে দেয়া হয়। সেগুলো হল,পার্বত্য চুক্তি পূর্ন বাস্তবায়নে দৃশ্যমান পদক্ষেপ নেয়া না হলে পহেলা মে থেকে সন্তু লারমার অসহযোগ আন্দোলনের ঘোষনায় সরকারের কি করা উচিত, পার্বত্যাঞ্চলে সংঘটিত প্রতিটি সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা কি বিচার বিভাগীয় তদন্ত হওয়া উচিত এবং ২০২১ সালের মধ্য একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার লক্ষে বাংলাদেশ রাজনৈতিকভাবে কতটা প্রস্তুুত।

অনুষ্ঠানে প্যানেল আলোচক সাংসদ ফিরোজা বেগম চিনু বলেন, সন্তু লারমার অল্টিমেটামের ভয়ে সরকার ভীত নয়। রাজ পথে মোকাবেলা করা হবে। তিনি বলেন, সরকার পার্বত্য চুক্তির অধিকাংশ বাস্তবায়ন করেছে। চুক্তির বাকী ধারাগুলো বাস্তবায়নের জন্য সরকার উদ্যোগ নিয়েছে। তিান অপর প্রশ্নের জবাবে বলেন, ২০২১ সালের মধ্য একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়ার জন্য সরকার যেভাবে ধাবিত হচ্ছে ২০২১ সাল র্পযন্ত অপক্ষো করতে হবে না।

চাকমা রাজা দেবাশীষ রায় বলেন,সরকার পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নের কথা বললেও তা গাণিতীকহারে বাস্তবায়ন করছে। চুক্তিতে ভুমি বন্টন, অাভ্যন্তরীণ উদ্ধাস্তুদের পূর্নবাসন, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের ক্ষমতা হস্তান্তর করেনি। তিনি আরও বলেন,যেভাবেই হোক বিচার নিরপেক্ষ হতে হবে। তদন্ত কমিটি প্রতিবেদনের সবকছিু জনসমক্ষে আসতে হবে। পাহাড়ী-বাঙালরি মিশ্রনে নিরাপত্তাা বাহিনী গঠন করা দরকার। কেউ কেউ সরকারকে কু-পরার্মশ  দিচ্ছে এ চুক্তি বাস্তবায়ন না করার জন্য। নারী র্ধষনরে মতো ঘটনাগুলো বিশেষ দৃষ্ঠিভংঙ্গি  নিয়ে দেখতে হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের জনগণ র্কমঠ। সরকার  শিক্ষা, স্বাস্থ্যর মত দিকগুলো মনোযোগ না  দিলে বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। রাজনতৈকি স্থিতিশীলতাও একটা ফ্যাক্টর। সরকার যেন বৈষম্যহীনভাবে ভুমিকা রাখে।

সাইফুল ইসলাম চৌধুরী ভুট্টো বলনে, পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়ন সরকারের দায়িত্ব। বাস্তবায়ন করার জন্য সরকারকে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিতে হবে। পারস্পরকি সহর্মমতিা ও সহযোগীতা করা দরকার। আর এর জন্য রাজনতৈকি স্থিতিশীলতা স্তিস্থিশীলতাও দরকার। তিনি বলেন, আল্টিমেটাম তো সন্তু লারমা আগেও দিতে পারতেন। চুক্তিতে সবচেয়ে বেশী বঞ্চিত করা হয়েছে বাঙালীদের।

টুকু তালুকদার বলনে, সরকার আন্তরকি হয়েই চুক্তি করেছিল। আর বাস্তবায়ন করতে পারবে বলেই তো সরকার চুক্তি করছিল। এখন কিভাবে বাস্তবায়ন করা যায়, সেটা নিয়ে বসা দরকার। অনেক সময় বিচার ব্যবস্থার উপরে সাধারণ মানুষরে আস্থা থাকে না উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন বেশীরভাগ মামলারই আসামীরা  কিন্তু ধরা পড়ছে না। তিনি সার্বিক রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা আনার পাশাপাশি পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়ন করা দরকার এবং নারীর উৎপাদনমূলক  কন্দ্রিবিউশন যোগ করা উচিত বলে মন্তব্য করেন।

আয়োজক সূত্রে জানা গেছে, বিবিসি বাংলাাদেশ সংলাপের ২১টি র্পব অনুষ্ঠিত হয়েছে ঢাকার বাইরে বিভিন্ন জেলা  ও  বিভাগীয় শহরে। এ অনুষ্ঠানগুলোর মাধ্যমে বিভিন্ন জাতীয় ও গুরুত্বর্পূণ ইস্যুতে ঢাকার বিভিন্ন জেলাগুলোর নাগরিকদের  মতামত তুলে আনার চেষ্টা করা হয়েছে। বিবিসি মিডিয়া অ্যাকশন এবং বিবিসি বাংলা’র যৌথ আয়োজনে পরিচালিত অনুষ্ঠানটি ইতিমধ্যে টিভি,রেডিও অনলাইনরে মাধ্যমে বহু র্দশকদের কাছে পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছে।

বিবিস বাংলাদেশ  সংলাপ’ অনুষ্ঠানটি  বিবিসি বাংলা রেডিও-তে প্রচারতি হয় প্রতি  রোাববার  রাত ৮টায়এবং পুন:প্রচারতি হয় মঙ্গলবার রাত ৮টায়। এছাড়া ‘চ্যানলে আই’তে অনুষ্ঠানটি প্রচারতি হয় সোমবার রাত ৭টা ৫০ মিনিটে এবং পুন:প্রচারতি হয় প্রতি মঙ্গলবার সকাল ৫টা এবং দুপুর ৩টা ৫মিনিটে।

–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly