রাঙামাটিতে জেএসসি পরীক্ষায় পাশের হার ৮৩.৮৩%, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৯২ জন

বিশেষ রিপোর্টার, হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম 

এ বছর জুনিয়র সার্টিফিকেট পরীক্ষায় (জে.এস.সি) রাঙামাটি জেলায় ফলাফল ভাল হয়েছে। এ বছর এ জেলায় পাশের হার শতকরা ৮৩ দশমিক ৮৩ শতাংশ। যা ২০১২ সালের তূলনায় ৭ দশমিক ২ শতাংশের বেশী। এবার ৩৯২জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে।

জেলা শিক্ষা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটি পার্বত্য জেলার ১০৯ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এবছর জেএসসি পরীক্ষায় মোট ৮ হাজার ৮৮৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৭ হাজার ৪৪৭ জন। ২০১২ সালে উত্তীর্ন পরিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৬৭০৭ জন।

সূত্র জানায় এবছর জেলার ১৩ টি বিদ্যালয়ের জেএসসি পরীক্ষায় পাশের শতকরা হার ১০০ ভাগ। বিদ্যালয়ের মধ্যে রাঙামাটি সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে সর্বোচ্চ সংখ্যক জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৬ জন শিক্ষার্থী, কাপ্তাই নৌ বাহিনী উচ্চ বিদ্যালয়ের জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৮ জন, রাঙামাটি লেকার্স পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৬ জন, রাঙামাটি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে মাত্র ২৯ জন ও বড় মহাপুরুম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ জন শিক্ষার্থী।

উপজেলা ভিত্তিক ফলাফলে দেখা গেছে জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলায় এ বছর জেলায় সর্বোচ্চ সংখ্যক পাশের হার যা শতকরা ৯৬ দশমিক ৭৫ ভাগ। এই উপজেলা থেকে ৫৭ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে । উপজেলার কাচালং মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, তুলাবান উচ্চ বিদ্যালয়, সারোয়াতলী উচ্চ বিদ্যালয় এবং দক্ষিন রুপকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশের হার শতকরা একশ ভাগ। নানিয়ারচর উপজেলার পাশের শতকরা হার ৯৫ দশমিক ২ ভাগ। যা উপজেলার মধ্যে দ্বিতীয়।

এই উপজেলার মহাপুরুম উচ্চ বিদ্যালয়, জাহানাতলী উচ্চ বিদ্যালয়, গাইন্দ্যাছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়, মরাচেংগী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পাশের শতকরা হার ১০০ ভাগ। জেলার শতকরা ১০০ ভাগের পাশের হারের কৃতিত্ব অর্জনকারী অপর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে বরকল উপজেলার বিলছড়া উচ্চ বিদ্যালয়, হাজা ছড়া উচ্চ বিদ্যালয় ও বরুনাছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়। জেলার ১০৯ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সর্বনিম্ন সংখ্যক পাশের হার রাজস্থলী উপজেলার গাইন্দ্যা উচ্চ বিদ্যালয় ( পাশের শতকরা হার ৩৪ দশমিক ৯৩ ভাগ)

জেলার শিক্ষা কর্মকর্তা ফজলুর রহমান জানান, এ বছর জেলার ১০৯ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা আশানুরুপ ফলাফল করেছে।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly