রাঙামাটিতে এএসএম শহীদুল্লাহ’র কর্ম জীবনের উপর আলোচনা ও দোয়া মাহফিল

স্টাফ রিপোর্টার,হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

ASM Shaidullah
মরহুম এএসএম শহীদুল্লাহ’র কর্ম জীবনের উপর শনিবার রাঙামাটিতে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এ এসএম শহীদু ল্লাহ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে রাঙামাটিস্থ বনরুপা মোজাদ্দে-দ-ই আল-ফেসানি একাডেমী মিল নায়তনে অনুষ্ঠিত আলাচনা সভায় বক্তব্যে দেন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের প্রাক্তন চেয়ারম্যান রবিন্দ্রলাল চাকমা, রাঙামাটি পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান কাজী নজরুল ইসলাম, পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের উপদেষ্টা মাও: মো: শাহজাহান, রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ সম্পাদক আব্দুল মতিন, ইসলামিক সেন্টারের জেনারেল সেক্রেটারী এডভোকেট মোখতার আহমেদ,রাঙামাটি জেলা জামায়াতের আমীর অধ্যাপক আব্দুল আলীম, প্রাক্তন সিভিল সার্জন ডা: সুপ্রিয় বড়ুয়া, আল আমিন ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাও: নুরুল আলম ছিদ্দিকী, মেডিকেল কলেজ ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বাস্তবায়ন সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর আলম মুন্না, নারী নেত্রী বেগম নুরজাহান, জেলা পরিষদের প্রাক্তন সদস্য মনিরুজ্জামান মুহসিন রানা, পৌরসভার কর্মকর্তা শংকর প্রসাদ দে, শহীদুল্লাহ ফাউন্ডেশনের আহ্বায়ক মাও: আব্দুল্লাহ আল হেলাল ও মরহুম শহীদুল্লাহর জৈষ্ঠ্যপুত্র ও ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন।

অনুষ্ঠানে দোয়া মাহফিল শেষে মরহুমের রুহের ও বিদায়ী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মুনাজাত করা হয়। ।মোনাজাত পরিচালনা করেন ফরেস্ট মসজিদের খতিব আলহাজ্ব মাও: মোহাম্মদ মিয়া। অনুষ্ঠান শেষে প্রায় কয়েকজ হাজার লোকজন দাওয়াতি খানায় অংশ গ্রহন নেন।

স্মরণ সভায় বক্তারা বলেন, এএসএম শহীদুল্লাহ ছিলেন মানুষ ও মানবতার বন্ধু, আজীবন বঞ্চিত মানুষের জন্য কাজ করা এই জননেতার জীবনে সবচেয়ে বড় মিশন ছিল পিছিয়ে পড়া পার্বত্য মানুষের শিক্ষার সুযোগ তৈরি করা। তিনি ছিলেন সাম্প্রদায়িদক সম্প্রীতির মডেল। পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রেক্ষাপটে এএসএম শহীদুল্লাহর মতো মানুষের প্রয়োজন অনেক বেশি।

বক্তারা আরও বলেন, এএসএম শহীদুল্লাহ বলতেন জাতিকে শিক্ষিত করার মাধ্যমেই সম্প্রীতির বন্ধন সুদৃঢ় করা সম্ভব। কারণ মানুষ যখন শিক্ষিত হয়, তখন তার বিচার-বিবেচনা ও বিবেকবোধেরও পরিবর্তন হয়। শিক্ষিত হলে সাবলম্বী হয় আর বেকার মানুষের মাঝে নানা বিচিন্তার বিকাশ ঘটে। পাহাড়ের মানুষের জন্য সম্প্রীতির পরিবেশ আর শান্তিপ্রিয় সমাজ তৈরির লক্ষ্যে কাজ করা এই নেতা কখনও নিজের স্বার্থের কথা চিন্তাও করেননি। কাজেই পাহাড়ের মানুষ আজীবন তাঁকে শ্রদ্ধার সাথে মনে রাখবে।

উল্লেখ্য, ১৩ অক্টোবর জামায়াত ইসলামীর রাঙামাটি জেলা শাখার সাবেক আমীর ও রাঙামাটি স্থানীয় সরকার পরিষদের সাবেক সদস্য এএসএম শহীদুল্লাহ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেন। তিনি দীর্ঘ দিন ধরে ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ বিভিন্ন জটিল রোগে ভুগছিলেন।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly