বিএনপি-জামায়াতের অরাজকতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টির প্রতিবাদে রাঙামাটিতে আওয়ামীলীগের মানববন্ধন

 স্টাফ রিপোর্টার, হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

Picture1

বিএনপি-জামায়াত জোটের হরতাল-অবরোধ, পেট্রোল বোমা দিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা এবং অরাজকতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টির প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার জেলা আওয়ামীলীগ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে।

জেলা প্রশাসন কার্যালয় চত্বরে জেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। মানববন্ধন চলাকালে প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার।  বক্তব্যে দেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর, মাহফজুর রহমান, মিজানুর রহমান, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সাধন মনি চাকমা, ঝর্ণা চাকমা, নূর মোহাম্মদ, নাজমুল হাসান ও জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহ এমরান রোকন। জেলা আইনজীবি পক্ষথেকে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্যে দেন এ্যাডভোকেট প্রতিম রায় পাম্পু।

সমাবেশে  বক্তারা  বিএনপি   নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের  জোটরে ডাকা সন্ত্রাস  নির্ভর আন্দোলনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত  করেন।  তারা বলেন  ককটেল ও পেট্রেআল  বোমা ছুঁড়ে  মানুষ পোড়ানোর নির্দেশদাতা হচ্ছেন  খালেদা জিয়া। তাকে অবিলম্বে  আটক করে  বিচারের  মুখোমুখি করতে হব। খালেদা জিয়া যাতে  তার সন্তানদের মত  অন্য  কোন দেশে পালাতে না পারে  সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে দীপংকর তালুকদার বলেন,  চলামান অরোধ ও হরতালেরও মধ্যেও দেশের  প্রত্যেক জেলায়  যানবাহন  চলাচল  স্বাভাবিক  রয়েছে। এক জেলা থেকে অন্য জেলায়  চলছে গাড়ি। এমনকি দুরাপাল্লার যানবাহনও চলছে স্বাভাবিকভাবে।  তবে কিছু  কিছু জায়গায় চোরাগুপ্তা  হামালা চালাচ্ছে ২০ দলীয় সন্ত্রাসীরা। ককটেল  ও পেট্রোল বোমা  ছুড়ে গাড়িসহ মানুষ পুড়িয়ে মারছে জামায়াত-বিএনপির ক্যাডাররা। দেশেল আইন-শৃংকলা বাহিনীর সদস্যদের তৎপরতা কমে আসছে।

তিনি আরও বলেন, ২০ দলীয় সন্ত্রীদের  হাতে  এ পর্ষন্ত  প্রায় ৩শ  মানুষ হাতহত হয়েছে। তারা আন্দোলনের নামেযেভাবে মানুষ পুড়িয়ে মারছে তা অত্যন্তবেদনা দায়ক ও মর্মস্পর্শী। কিন্তু তাদের নেতাদের কোন বেদনাবোধ টুকুও নেই।

তিনি বলেন, একই প্রতিবাদে গত ৮ফের্রুয়ারী রাঙামাটিচেম্বার অব কমার্স ইন্ডাষ্ট্রিসের অয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে চলমান সন্ত্রাস ও সহিংসতার শিকার নিরীহ মানুষদের যন্ত্রনা উপলদ্ধি করতে পেরে জেলা  বিএনপির সাধারন সম্পাদক শাহ আলমসহ তাদেরবেশ কিছু নেতা-কর্মী অংশ নেয়ায় তাদেরকে ধন্যবাদ।

 –হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly