বাবুছড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে দীর্ঘ দিন ধরে চলছে পুলিশ ফাঁড়ির কার্যক্রম

জাহাঙ্গীর আলম রাজু, দীঘিনালা, হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

dd_DMEABSখাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার বাবু ছড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চলছে পুলিশ ফাঁড়ির কার্যক্রম। দীর্ঘদিন ধরে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পুলিশ ফাঁড়ির কার্যক্রম চলমান থাকায় স্বাস্থ্য সেবা প্রাপ্তি হতে বঞ্চিত হয়ে আসছে উপজেলা বাবুছড়া ইউনিয়নবাসী।

এদিকে বাবু ছড়ায় পুলিশ ফাঁড়ির নামে ভূমি অধিগ্রহন করা হলেও দীর্ঘদিন পরও সেখানে কোনো ভবন নির্মিত না হওয়ায় গত ১৪ বছর ধরে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে চলছে পুলিশ ফাঁড়ির নিয়মিত কার্যক্রম।

স্বাস্থ্য কেন্দ্রে অবস্থানের সত্যতা স্বীকার করে বাবু ছড়া পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মোঃ নিজাম উদ্দীন জানান, ফাঁড়ির নামে ভূমি অধিগ্রহন করা হলেও সেখানে ভবন নির্মিত না হওয়ায় প্রায় ৩০ জন পুলিশ সদস্য নিয়ে স্বাস্থ্য কেন্দ্রেই পুলিশ ফাঁড়ির কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। তবে স্বাস্থ্য কেন্দ্রের এই ভবনটিও জরাজীর্ণ। ছোট্ট দুটি কক্ষে ৩০ জন পুলিশ সদস্যকে গাদাগাদি করে থাকতে হচ্ছে। তাই সুষ্ঠভাবে পুলিশিং কার্যক্রম পরিচালনার স্বার্থে ফাঁড়ির নিজস্ব জায়গায় জরুরী ভিত্তিতে ভবন নির্মাণ করা প্রয়োজন বলে জানান তিনি।

বাবুছড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রের দায়িত্বে নিয়োজিত পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা পম্পি চাকমা জানান, স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপন করায় ছোট্ট একটি কক্ষে কোনোমতে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রের কার্যক্রম পরিচালনা করতে হচ্ছে। জায়গা সংকুলান না হওয়ায় অনেক সময় আমরা নিজেরাও বসতে পারি না এবং দুর্গম এলাকা হতে আগত রোগীদের বসতে দিতে পারি না। নিজস্ব ভবনে স্বাস্থ্য সেবার কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারলে আগত রোগীদের সেবাদানে সুবিধা হতো বলে জানান তিনি।

বাবুছড়া ইউপি চেয়ারম্যান সুগত প্রিয় চাকমা জানান, স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পুলিশ ফাঁরি স্থাপন করায় পুলিশিং সেবা প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত হলেও প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য সেবার সুযোগ সুবিধা প্রাপ্তি হতে বঞ্চিত হচ্ছে এলাকাবাসী। তাই পুলিশ ফাঁরির নিজস্ব জায়গায় ভবন নির্মানের মাধ্যমে স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে ফাঁড়ির কার্যক্রম স্থানান্তর করা হলে পুলিশিং সেবা ও স্বাস্থ্য সেবা উভয় ক্ষেত্রেই বাবু ছড়াবাসী উপকৃত হবেন বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ সাহাদাত হোসেন টিটো জানান, এলাকাবাসীর প্রয়োজনেই সেখানে পুলিশ ফাঁড়ি স্থাপন করা হয়েছে। তাই এলাকাবাসীর চিকিৎসা সেবার স্বার্থে পুলিশ ফাঁড়ির নামে অধিগ্রহনকৃত জায়গায় ভবন নির্মানের মাধ্যমে ফাঁড়ির কার্যক্রম স্থানান্তরের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করার জন্য বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে বলে জানান তিনি।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/এনএ.

Print Friendly