বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের নতুন কমিটির অনুমাদন লাভ: সভাপতি ক্যশৈ হ্লা,সাধারন সম্পাদক কাজি মোঃ মজিবর রহমান

বান্দরবান প্রতিনিধি,হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

1

বান্দরবানের জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈ হ্লা মারমা ও কাজি মোঃ মজিবর রহমান সাধারন সম্পাদক করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অনুমোদন দিয়েছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ।

বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের নতুন কমিটির অনুমোদনের পাওয়ার পর রোববার বান্দরবান প্রেস ক্লাবে  এক সংবাদ সন্মেলনের  আয়োজন করা হয়েছে।

সংবাদ সন্মেলনে বলা হয়, অনুমোদিত নতুন কমিটির অন্যান্যরা হলেন সহ সভাপতি পদে পার্বত্য আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য শফিকুর রহমান,সাবেক সাধারন সম্পাদক আবদুর রহিম চৌধুরী,সুধাংশু বিমল চক্রবর্তী,মোঃ ইসলাম বেবী,মংঙোয়ে প্রু চৌধুরী,মংক্যাচিং চৌধুরী, মোঃ ইসহাক,একেএম জাহাঙ্গীর ও সত্যসাহাপাঞ্জি ত্রিপুরা। যুগ্ন সাধারন সম্পাদক পদে লক্ষিপদ দাশ,হ্লাথোয়াইহ্রী,রাংলাই ম্রো। সাংগঠনিক সম্পাদক পদে জেলা পরিষদ সদস্য ক্যসাপ্রু মারমা,মোজম্মেলহক বাহাদুর,পৌর কাউন্সিলার অজিত দাশ।

সংবাদ সন্মেলনে বলা হয়, বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের নতুন ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অনুমোদন দিয়েছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর পর ৫অক্টোবর কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এলজিআরডি মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম সাক্ষরিত বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কাজি মজিবর রহমানের  কাছে লিখিত চিঠি প্রেরণ করেন।  এ সময় অনুমোদিত কমিটির চিঠি সংবাদকর্মীদের কাছে বিলি করা হয়।

সংবাদ সন্মেলনে নতুন কমিটির বান্দরবানের জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈ হ্লা মারমা ও  সাধারন সম্পাদক কাজি মোঃ মজিবর রহমানসহ জেলা নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সন্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কাজি মজিবর রহমান জানান, যারা বিগত নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে দৃশ্যমান বা অদৃশ্যমান কাজ করেছে তারাভুল স্বীকার করলে তাদেরকে পুনরায় দলের সিদ্ধান্ত নুযায়ী দলে পিরিয়ে নেয় াহবে।

তিনি অপর এক প্রশ্নের জবাবে জানান, প্রতিটি রাজনৈতিক দলেই কিছু কিছু সুবিধা ভোগী থাকে। তবে তাদের ব্যপারে সতর্ক থেকে কাজ করতে হবে।

তিনি  জানান, বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বীর বাহাদুরের নেতৃত্বে এখন সংঘবদ্ধ। বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগ জন নেত্রী শেখ হাসিনার যে কোন আদেশ নির্দেশ প্রতিপালনে সম্পুর্ণরুপে ঐক্যবদ্ধ।

উল্লেখ্য, বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি প্রসন্ন কান্তি তংচংগ্যা দলের বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারী স্বতন্ত্রভাবে  জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ায় তাকে দল থেকে বহিস্কার করার পর নবগঠিত কমিটির অনুমোদন লাভ কললো।

–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly