বর্তমান সরকার সকল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে উন্নয়নে সাধ্যমত কাজ করে যাচ্ছে—নিখিল কুমার চাকমা

স্টাফ রিপোর্টার, হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম 

বর্তমান সরকার সকল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে উন্নয়নে সাধ্যমত কাজ করে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা।

আজ শুক্রবার(২৫ অক্টোবর) রাঙামাটি শহরের ট্রাইবেল আদামের পারমী বৌদ্ধ বিহারে ১১তম কঠিন চীবর দানোৎসব অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

RHDC Picture-25-10-13-01

পারমী বৌদ্ধ বিহার প্রাঙ্গনে আয়োজিত কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠান সূচির মধ্যে ছিল সংঘদান, অষ্ট পরিষ্কার দান বুদ্ধমুর্তি দান, হাজার প্রদীপ দানসহ বিভিন্ন দানযজ্ঞ। অনুষ্ঠানে ধর্ম দেশনা দেন লুম্বিনী বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ চন্ত্রবংশ স্থবির ও রাঙামাটি রাজবন বিহারের অরিন্দম ভিক্ষু। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিহার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সদানন্দ চাকমা। অনুষ্ঠানে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ছাড়াও শত শত বৌদ্ধ পুণ্যার্থী অনুষ্ঠানে শরিক হন।

পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন,বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের উন্নয়ন মুলক কর্মকান্ডের ধারাবাহিকতা এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদারের সদিচ্ছা ও সকল ধর্মের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে সুদৃষ্টির কারণে এটি করা সম্ভব হয়েছে। তবে ২৫ লক্ষ টাকার ব্যয়ে যে ভবন নির্মাণ করা হয়েছে তা এ বিহারের জন্য যথেষ্ট নয়। ভবিষ্যতে আরও এ বিহারের উন্নয়নে চেষ্টা করা হবে। তিনি বিহার সংলগ্ন দেয়াল ও রান্না ঘর নির্মাণের জন্য জেলা পরিষদ থেকে দুই লক্ষ টাকা অনুদান দেয়ার আশ্বাস দেন।

অরপদিকে দুপুরে পরিষদ চেয়ারম্যান ফুরোমন সাধনাতীর্থ আন্তর্জাতিক বনধ্যাম কেন্দ্রে ৭ তম কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। ফুরোমন সাধনাতীর্থ আন্তর্জাতিক বনধ্যাম কেন্দ্রে  আয়োজিত ধর্মীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। অনুষ্ঠানে ধর্ম দেশনা দেন রাঙামাটি রাজ বনবিহারের আবাসিক ভিক্ষু-সংঘের প্রধান শ্রীমৎ প্রজ্ঞালংকার মহাস্থবির। এছাড়া ধর্ম দেশনা দেন ফুরোমন সাধনাতীর্থ আন্তর্জাতিক বনধ্যাম কেন্দ্রের অধ্য শ্রীমৎ ভৃগু মহাস্থবির, খাগড়াছড়ি পানছড়ির শান্তিপুর অরন্য কুঠিরের অধ্যক্ষ শাসন রক্ষিত মহাস্থবির ও দেনরাজ বনবিহারের শ্রীমৎ জ্ঞান প্রিয় মহাস্থবির। পঞ্চশীল প্রার্থনা করেন বনধ্যাম কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক নিরু কুমার চাকমা ও বিশ্ব শান্তি কামনায় বিশেষ প্রার্থনা পাঠ করেন উৎপল বর্ণা চাকমা। স্বাগত বক্তব্য দেন বনধ্যাম কেন্দ্রের সহ-সভাপতি শান্তি মনি চাকমা।

–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly