পার্বত্য চট্টগ্রামে শিক্ষার প্রসারে একটি মহল বাধাগ্রস্থ করছে–পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার,হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

h1

 

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি বলেছেন, সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামে শিক্ষার প্রসারে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহন করলেও একটি মহল রাঙামাটিতে মেডিকেল কলেজ ও বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন কাজে বিরোধীতা করছে।

শনিবার রাঙামাটিতে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের চতুর্থ শ্রেণীর ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিপ্রাপ্তদের বৃত্তি ও সনদপত্র প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী এ অভিযোগ করেন।

রাঙামাটি সাংস্কৃতিক ইনষ্টিটিউট মিলনায়তনে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার, জেলা প্রশাসক মোঃ মোস্তফা কামাল, জেলা পরিষদের মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম জাকির হোসেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম মন্ত্রনালয়ের উপদেষ্টা কমিটির সদস্য শাহজাহান মোল্লা, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য মাহাবুবুর রহমান, শিক্ষা বিষয়ক কমিটির আহবায়ক অংসুই প্রু চৌধুরী প্রমূখ।

অনুষ্ঠান শেষে অতিথিবৃন্দ রাঙামাটির দশ উপজেলার ৪০১জন শিক্ষার্থীকে ৭ লাখ ২০ হাজার টাকার বৃত্তি প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রীকে চেয়ারম্যান শুভেচ্ছা ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়।

রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের প্রবর্তিত চতুর্থ শ্রেণী বৃত্তি পরীক্ষায় ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিপ্রাপ্ত ১০১জনকে এক হাজার টাকা,  সাধারন বৃত্তিপ্রাপ্ত ৩শ জনকে ৫০০ টাকা করে নগদ অর্থ ও সনদপত্র প্রদান করা হয়। এ বছর এ পরীক্ষায় ৩ হাজার৩৮৫  জর রেজিষ্ট্রেশন করলেও পরীক্ষায় অংশ নেয় ২ হাজার ৯১৯জন শিক্ষার্থী। মেধানুসারে এ বছর জেলার প্রথম স্থান অধিকার করেছে কাপ্তাই উপজেলার বিএন রেজিঃ স্কুলের নওরিন আহমেদ।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা বলেন, আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম গড়ে তুলতে তাদেরকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার পরিবেশ করে দিতে হবে। তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষা প্রসারে পার্বত্য এলাকায় যে কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে তা অতিতে কোন সরকার করেনি। তিনি শিক্ষার প্রসারে সরকারের গৃহীত উদ্যেগ বাস্তবায়ন করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly