দীঘিনালায় এক পাহাড়ী যুবককে গুলি করে হত্যা

দীঘিনালা প্রতিনিধি, হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম
খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা এক পাহাড়ী যুবককে গুলি করে হত্যা করেছে বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার রাতে উপজেলার বাবুছড়া ইউনিয়নের দুর্গম ধনপাতা মৌজার হেডম্যান ধীরেন্দ্র তালুকদারের ছেলে অজিত তালুকদার (৩৬) কে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করা হয়। বুধবার সকালে পরিবারের লোকজন পার্শ্ববতী তালুকদার পাড়ার জঙ্গল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে।

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে চলমান ভ্রাতৃঘাতি সংঘাতের কারনেই অজিত তালুকদারকে হত্যা করা হয়েছে এলাকাবাসী জানিয়েছেন। এ ঘটনায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিজেএসএস) সন্তু ও ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) পরষ্পরকে দায়ী করেছে। নিহত অজিত তালুকদার কোনো রাজনৈতিক দলের সাথে সম্পৃক্ত  ছিলেন না বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

তবে  তিনি সন্তু লারমা সমর্থিত পিজেএসএস’র শীর্ষনেতা প্রাঞ্জল চাকমার শ্যালক বলে জানা যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, মঙ্গলবার রাত ৮ টার দিকে একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী ফাঁকা গুলি করে এলাকায় আতংক সৃষ্টি করার পর অজিত তালুকদারকে অস্ত্রের মুখে নিজ বাড়ি থেকে তোলে নিয়ে যায়। পরদিন সকালে তালুকদার পাড়ার জঙ্গল থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। তকে কি কারনে তাকে হত্যা করা হয়েছে এ বিষয়ে তারা কিছুই জানাতে পারেনি।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নব কমল চাকমা জানান, আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে চলমান ভ্রাতৃঘাতি সংঘাতে পাহাড়ে এ পর্যন্ত অসংখ্য প্রানহানির ঘটনা ঘটেছে। অজিত তালুকদারের প্রানহানিও একই কারনে ঘটতে পারে বলে মন্তব্য করেন তিনি। দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ সাহাদাত হোসেন টিটো জানান, জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে আমিও এ হত্যাকান্ডের ঘটনাটি শুনেছি।
ঘটনাস্থল দুর্গম হওয়ায় কারা হত্যা করেছে এবং কি কারনে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে তা নিশ্চিত করে বলতে পারছি না। তাছাড়া এ বিষয়ে (বুধবার রাত ৮ টা পর্যন্ত) নিহতের পরিবার কিংবা অন্যকোন পক্ষ থেকে থানায় কোনো অভিযোগ দায়ের করেনি বলেও জানান তিনি।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly