জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপ ফুটবলে রাঙামাটি সদর উপজেলার শিরোপা লাভ

স্পোর্টস রিপোর্টার, হিলবিডিটেয়েন্টিফোর ডটকম 

footb
রাঙামাটিতে জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের আজ বৃহস্পতিবার(৩১ অক্টোবর) রাঙামাটি সদর উপজেলা দল ১-০গোলে বিলাইছড়ি উপজেলা দলকে হারিয়ে শিরোপা লাভ করেছে।

রাঙামাটি চিং হ্লা মং চৌধুরী মারী স্টেডিয়ামে টুর্নামেন্টে অনুষ্ঠিত সমপানী খেলায় চট্টগ্রাম বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার ও অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স-আপ দলের হাতে পুরুস্কার তুলে দেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙামাটি রিজিয়নের ব্রিগেড কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ সারোয়ার হোসেন। বক্তব্যে রাখেন জেলা প্রশাসক মোঃ মোস্তফা কামাল ও পুলিশ সুপার আমেনা বেগম ও মোবাইল অপারেটর কোম্পানী রবি-এর চট্টগ্রাম বিভাগের ম্যানেজার মোজাম্মেল হক। এসময় জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সভানেত্রী খাদেজা খানম, পৌর মেয়র সাইফুল ইসলাম ভুট্টো, জাতীয় মানবধিকার কমিশনের সদস্য নিরুপা দেওয়ান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি সুনীল কান্তি দে, হাজী কামাল উদ্দীন, সাধারন সম্পাদক বরুন দেওয়ান প্রমূখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাংবাদিক মোস্তফা কামাল।

Footb-2
আয়োজিত ফুটবল টুর্নামেন্টে রাঙামাটি সদর উপজেলা বনাম বিলাইছড়ি উপজেলা দলের মধ্যে ফাইনালের প্রমার্থে উভয় দল গোল শুন্য অবস্থায় থাকে। পরে খেলার দ্বিতীয়ার্থে ৩০ মিনিটের মাথায় রাঙামাটি উপজেলা দলের প থেকে খোলোয়াড় মুন্না আসাম একটি গোল করেন। তবে গোল হওয়ার সাথে সাথে বিলাইছড়ি উপজেলা দলের খেলোয়াড়রা অফসাইড দাবি করে রেফারীর কাছে আপিল করে। তবে রেফারী তাদের আপিল নাখোশ করে দিলে এতে বিলাইছড়ি উপজেলা খেলোয়াড়রা কয়েক মিনিনের জন্য খেলা বন্ধ রাখেন। অবশ্যই পরে দলের কোচ ও ম্যানেজারদের অনুরোধে আবারও বিলাইছড়ি উপজেলা দলের খেলোয়াড়রা খেলা শুরু করলে নির্ধারিত সময়ে খেলা সমাপ্ত হয়। এতে ফাইনাল খেলায় তীব্র প্রতিদ্ধন্ধিতা ও উত্তেজনাপূর্ণ খেলায় রাঙামাটি সদর উপজেলা দল এ টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন লাভ করতে সক্ষম হয়।

গত ২২ অক্টোবর পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা(সন্তু লারমা) থেকে এ টুর্নামেন্টের উদ্ধোধন করেন। এ টুর্নামেন্টে জেলার দশ উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার দল অংশ গ্রহন করেছে।

sports

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিভাগীয় কমিশনার বলেন এ ফুটবল টুর্নামেন্টের মাধ্যমে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে একটা প্লাটফরমে একত্রিত করেছে। এ প্রতিযোগিতাপূর্ণ খেলার মধ্য দিয়ে এখানকার তরুন ও যুব সমাজকে সুপথে পরিচালিত করবে। যুব সমাজকে মাদকের ছোবল থেকে অনেক অনেক দুরে রাখবে এবং সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনির ক্ষেত্রে যুব সমাজ একটা অন্যান্য অনুচ্ছেদ হিসেবে থেকে ভূমিকা রাখবে।

টুর্নামেন্টের খেলার প্রশংসা করে অতিরিক্ত সচিব আরও বলেন, ব্যক্তিগতভাবে ফাইনাল খেলাটি উপভোগ করতে পেরে সত্যিই আনন্দিত। সেই সাথে আরও আনন্দিত খেলোয়াড়দের ক্রীড়া নৈপপণ্য ও সুশৃংখলা খেলা দেখে। পাশাপাশি রাঙামাটি দর্শকরা অনেক চমৎকার ও সুশৃংখলতার জন্য খুবই মুগ্ধ হয়েছি।

তিন পার্বত্য জেলার মধ্যে রাঙামাটি জেলার খেলোয়াড়রা সবচেয়ে ভাল খেলোয়াড় বলে আমার কাছে মনে হয়েছে তিনি উল্লেখ করে বলেন, যারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা আগামীতে যাতে জাতীয় পর্যায়ে সন্মান রাখতে এবং জাতীয় দলে প্রভিভাবান খেলোয়াড় হবে বলে আশা রাখছি। রাঙামাটি জেলা ক্রীড়া সংস্থা, জেলা ফুটবল ফেডারেশনসহ অন্যান্য সংস্থা আগামীতে জেলার ক্রীড়াঙ্গনকে আরও মূখরিত রাখবে বলে তিনি আশা ব্যক্ত করেন।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/এনএ.

Footb-3

Print Friendly