জনসংহতি সমিতি জনসাধারনের সাথে প্রতারণা করেছে–দীপংকর তালুকদার

জুরাছড়ি প্রতিনিধি হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

বৃহস্পতিবার জুরাছড়ি উপজেলায় আওয়ামীলীগের কর্মী সভা ও আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জুরাছড়ি আওয়ামীলীগের উদ্যোগে উপজেলা অফিসাস ক্লাবে কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ক সাবেক  প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার।  উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান প্রর্বতক চাকমা সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক দীপক দেওয়ান, রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সদস্য বন বিহারী চাকমা, মৈদং ইউপি চেয়ারম্যান বরুন তালুকদার। সভা সঞ্চালনা করে উপজেলা যুব লীগের সাধারণ সম্পাদক জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা।

সভায় শুরুতে আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনের সদস্য সাংগঠনিক কার্যক্রম করতে গিয়ে এবং বিভিন্ন কারণে সুদীপ্ত চাকমা (মক্কা), ললিত মোহন চাকমা, সুকময় চাকমা, জ্যোতির ময় হেডম্যান, স্নেহ কুমার চাকমা, নলনি নাক্ষ্য চাকমা অকাল মৃত্যুতে সকল সদস্যরা এক মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়। নিরাবতা পালন শেষে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রমথ কান্তি চাকমা, সিনিয়র সভাপতি চারু বিকাশ চাকমা, হেডম্যান মায়া নন্দ দেওয়ান, মহিলা লীগের সভানেত্রী মিতা চাকমা, ছাত্র লীগের সভাপতি রিকো চাকমা প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে দীপংকর তালুকদার পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি জনসাধারনের সাথে প্রতারণা করেছে অভিযোগ করে বলেন, তাদের কথা আর কাজের কোন মিল নেই। তারা পার্বত্য জেলা পরিষদ সংশোধনী আইন জনগনের সমূখে না মানলেও জনসংহতি সমিতির সমর্থিত ২৯৯ আসনের সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার ইতোমধ্যে লালএনলিয়ানা পাংখোয়া ও বিজয় রতন দে-কে জেলা পরিষদে সদস্যর জন্য প্রধান মন্ত্রীর নিকট সুপারিশ পাঠিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সংগঠন গনন্ত্রের বিশ্বাসী। এ সংগঠন জনগনের কল্যানের সংগঠন। এ সংগঠন ভোট ডাকাতির মাধ্যমে বিজয় হয় না। যারা ভোট ডাকাতি করে তারা জনগনের মূখোমুখি হতে ভয় পায়। আর এ ক্ষমতার স্থায়ীত্ব বেশি দিন তাকে না।  বিগত রাঙামাটি আসনের সংসদ নির্বাচন ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জনসংহতি সমিতি সহজ-সরল জনসাধারণের গণতান্ত্রীক অধিকার থেকে বঞ্চিক করেছে। তারা ভোট ডাকাতির মাধ্যমে বিজয় সিনিয়ে নিয়েছেন। তাদের জনগণ কোন দিন ক্ষমা করবে না।

–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly