কাপ্তাই হ্রদের জলে ভাসা জমিতে বোরো ধান কাটা শুরু, ফলন ভাল

বিশেষ প্রতিবেদক, হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

jlhillbd24.comরাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদের জলভাসা জমিতে বোরো ধান কাটার মৌসুম শুরু হয়েছে।

রাঙামাটি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে,এ বছর কাপ্তাই হ্রদে ৪ হাজার ৮শত হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে। এবছর হেক্টর প্রতি চাউলে ৩.০৬ মে.টন বোরো উৎপাদন হয়েছে। উৎপাদিত বোরো ধানের মধ্যে ব্রি-২৮,ব্রি-২৯ আর উফশী জাতের বিআর-২৬,ব্রি-৩৯,ব্রি-৫০,পূর্বাচী,ব্রি-৪৫ এবং হাইব্রিড ধানের হীরা-১,হীরা-২,এসিআই-১,সুপার হাইব্রিড,জাগরণ,লাল তীর,রাজকুমার,টিয়া,সোনার বাংলা,মধুমতি এসব ধানের চাষ হয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আরও জানায়, কাপ্তাই হ্রদে বোরো ধানের আবাদের পাশাপাশি পৃথক ৬ হাজার হেক্টর জমিতে ভূটা,আলু,তরমুজ,মিষ্টি আলু,সরিষা,সবজি,মরিচ,আখ,ছোলা,অড়হড়,খেসারী.মসুর,মুগডাল,ফেলন,মাসকলাই প্রভৃতি ফসলের চাষ হয়েছে। এবারের হ্রদের জমিতে বোরোর পাশাপাশি বিভিন্ন ফসলের ফলনও ভাল হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে গেছে, কাপ্তাই হ্রদ বেষ্টিত রাঙামাটি সদর,নানিয়ারচর,লংগদু,বাঘাইছড়ি,বরকল,জুরাছড়ি ও বিলাইছড়ি উপজেলার কৃষকদের মাঝে ধান কাটার ধুম পড়েছে। এসব উপজেলায় জলেভাসা জমিতে যারা সময়মত ধান রোপন করেছেন এ বছর ভাল ফলন পেয়েছে। তবে দেরীতে রোপন করা ধান গাছ বিবর্ণ ও দুর্বল প্রকৃতির হওয়ায় ওসব গাছে ভাল ফলন হয়নি। এছাড়া এবার পরিবেশ প্রতিকুল হওয়ায় প্রখর রোদ ও অনাবৃষ্টিতে কৃষকরা ধান গাছের পরিচর্যা করতে পারেনি। হ্রদের অধিকাংশ ভাসমান জমির সেচ ব্যবস্থা প্রকৃতির উপর নির্ভরশীল হওয়ায় এবার প্রকৃতি ছিল রুক্ষ।

বিলাইছড়ি উপজেলার কৃষক কল্পরঞ্জন চাকমা বলেন,এবার ৫ কানি জমিতে ধান লাগিয়েছি। ফলন ভাল হওয়ায় প্রাপ্ত ধানে পরিবার-পরিজন নিয়ে ২ বছরের অধিক খেতে পারবেন বলে তিনি জানিয়েছেন। এবার ধানের ফলন ভাল হওয়ায় কৃষকের মুখে ফুটেছে হাসি।

রাঙামাটি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নরেশ চন্দ্র বারই জানান, কাপ্তাই হ্রদে এ পর্যন্ত উৎপাদিত বোরো ধানের ২০ শতাংশ কাটা হয়েছে। এবছর কৃষি বিভাগ থেকে এ জেলায় ৫১০টি প্রদর্শনী প্লটে কৃষকদের বীজ,সার,প্রযুক্তিভিত্তিক প্রশিক্ষণসহ পোকামাকড় ও রোগবালাই দমনে প্রকল্প থেকে ৮০টি স্প্রে মেশিন সহায়তা দেয়া হয়েছে।
–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly