আর্ন্তজাতিক মানবধিকার দিবস উপলক্ষে রাঙামাটিতে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার,হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

1_DMEABS

আর্ন্তজাতিক মানবধিকার দিবস উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) রাঙামাটি শহরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

মানবধিকার সংস্থা অধিকার রাঙামাটি শাখার উদ্যোগে রাঙামাটি রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয় চত্বরে আধা ঘন্টাব্যাপী মানব বন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। এসময় সীমান্ত হত্যা, বিচা র বর্হিভুত হত্যাকান্ড বন্ধ, নির্যাতন বিরোধী কনভেশন বাস্তবায়নসহ ইত্যাদি দাবি সম্বলিত ফেস্টুন ও প্লে কার্ড প্রদর্শন করা হয়।

মানববন্ধনে অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক গিরিদর্পন সম্পাদক ও বাংলাদেশ মানবধিকার বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি একেএম মকছুদ আহম্মেদ, দৈনিক রাঙামাটি ও বার্তালাইভের সম্পাদক আনোয়ার আল হক,পৌর কাউন্সিলর কালায়ন চাকমা,উদিচি শিল্পিগোষ্ঠীর রাঙামাটি শাখার সভাপতি ও ট্রান্স ফারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের সহযোগী সংগঠন সচেতন নাগরিক কমিটির(সনাক) সদস্য অমলেন্দু হাওলাদার, রাঙামাটির রাঙামাটি রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সুশীল প্রসাদ চাকমা, ট্রান্স ফারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের রাঙামাটি শাখার ব্যবস্থাপক পুলক পালিত,অধিকারের রাঙামাটি জেলা সমস্বয়ক বিজয় ধর প্রমুখ।

মানববন্ধন শেষে অধিকারের রাঙামাটির সমন্বয়কারী বিজয় ধরের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ সুপারেরর কাছে স্বারকলিপি প্রদান করা হয়। স্মারকলিপপিতে উল্লেখ করা হয়,বিগত ১১ মাসে রাজনৈতিক সহিংসতায় ৩৯১ জন নহিত ও ২১,৫৭৪ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন মানবাধিকার সংগঠন অধিকার। অধিকারের তথ্য অনুযায়ী সারাদেশে ২০১৩ সালের জানুয়ারী-নভেম্বর পর্যন্ত ২৮১ জন বিচারবর্হিভুত হত্যাকান্ডের শিকার হয়েছেন। তাদের মধ্যে কথিত ক্রসফায়ারে ৫৬ জন,নির্যাতনে ১১ জন এবং ২০৮ জন আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদেরে গুলিতে নিহত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া একই সময়ে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের হেফাজতে নির্যতনের শিকার হয়েছেন আরো অনেকেই এবং গুমের শিকার হয়েছেন ২৫ জন।

স্মারকলিপিতে আরও উল্লেখ করা হয়,২০১৩ সালে জানুযারী-নভেম্বর পর্যন্ত ২১৮ জন সাংবাদিক আক্রমনের শিকার হয়েছেন। এদের মধ্যে ১৪২ জন আহত,৩২ জন হুমকির সম্মুখীন,৭ জন আক্রমনের শিকার এবং ৩৯ জন বিভিন্নভাবে লাঞ্চিত হয়েছেন। মানাবাধিকার সংগঠন অধিকারের তথ্য অনুযায়ী ১১ মাসে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নারী যৌতুক ,ধর্ষন,যৌন হয়রানি,ও এসিড সন্ত্রাসের শিকার হয়েছেন। স্মারকলিপিতে মানবাধিকার সুসংহত করতে হলে বিচারবর্হিভুত হত্যাকান্ড,নির্যাতন,গুম,রাজনৈতিক সহিংসতা,সাংবাদিকদের উপর হামলা ও নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ করার দাবি জানানো হয়েছে।

 –হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly