আগামী বছরেই ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর মাতৃভাষায় পাঠদান চালু হচ্ছে– নিখিল কুমার চাকমা

স্টাফ রিপোর্টার,হিলবিডিটোয়েন্টিফোর ডটকম

Picture2

রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা বলেছেন, আগামী বছর থেকে ক্ষুদ্র-নৃ-গোষ্ঠীর মাতৃভাষার পাঠদান চালু হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, ইতোমধ্যে জাতীয় শিক্ষাক্রমে পাঠ্যপুস্তকে পার্বত্যাঞ্চলের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সকল জাতি-গোষ্ঠীর নিজ নিজ মাতৃভাষায় পাঠদানের জন্য অর্ন্তভুক্ত করা হয়েছে। তবে শুরুতে চাকমা,মারমা ও তংচংগ্যা ভাষায় পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠ্যপুস্তক প্রনয়ন করা হবে। এসব ভাষায় পাঠদানের জন্য প্রশিক্ষিত শিক্ষকেরও অভাব রয়েছে। তাই প্রশিক্ষিত শিক্ষক সৃষ্টির লক্ষ্যেও কাজ চলছে।

 মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে শনিবার রচনা ও সুন্দর হাতের লেখা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রাঙামাটি সরকারী গণগ্রন্থাগারের উদ্যোগে গণগ্রন্থাগার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত  আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা।জেলা সরকারী গণগ্রন্থাগারের সহকারী লাইব্রেরীয়ান সুনীলময় চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম জাকির হোসেন,প্রকৌশলী কিরণ বিকাশ চাকমা ও এস এম আবুল কাশেম ভান্ডারী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা গ্রন্থাগার সমিতির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক  ইয়াছিন রানা সোহেল। আলোচনা সভা শেষে রচনা ও সুন্দর হাতের লেখা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিষদ চেয়রম্যান জেলা গণগ্রন্থাগারকে ডিজিটালাইজড করার জন্য কম্পিউটার প্রদানের প্রতিশ্রুতি দেন।

–হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

Print Friendly